• বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০৪ অপরাহ্ন
ঘোষণা
দৈনিক আমার দিগন্তর পএিকায় প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে আজই যোগাযোগ করুন সম্পাদক দৈনিক আমার দিগন্তর মোবাঃ 01711169167

ওসমানী মেডিকেল টিকা কেন্দ্রে দালাল সিন্ডিকেট, টার্গেট নারী

দৈনিক আমার দিগন্তর / ৪১ বার
প্রকাশ হয়েছে : শুক্রবার, ১৩ আগস্ট, ২০২১

ওসমানী মেডিকেল টিকা কেন্দ্রে দালাল সিন্ডিকেট, টার্গেট নারী

শাকেল মিয়া
সিলেট জেলা প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস প্রতিষেধক ‌আমেরিকার তৈরি মডার্না আজ বৃহস্পতিবার থেকে প্রথম ডোজ দেয়া বন্ধ করছে সরকার। এই খবর পেয়ে সকাল থেকেই সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভিড় করেন টিকা গ্রহীতা অসংখ্য মানুষ। সকাল থেকেই এসব মানুষ হাসপাতালে ভিড় করতে শুরু করলে সকাল ১০টার আগেই লোকারণ্য হয়ে উঠে হাসপাতালের বহির্বিভাগ। কয়েকলাইনে দাঁড়িয়ে মানুষ টিকা নেয়ার জন্য অপেক্ষা করেন। আর এই অপেক্ষমান মানুষদের কাছ থেকে লাইন আর টিকা গ্রহণের এসএমএস ছাড়াই মডার্নার টিকা দিয়ে দেয়ার কথা বলে ৫০০ থেকে ১০০০ করে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একটি চক্র। আর তাদের প্রধান টার্গেট নারীরা।

মূলত হাসপাতালে ওয়ার্ডবয়, ক্লিনার আর স্থানীয় কয়েকজন মিলেই গড়ে তুলেছেন এই দালাল সিন্ডিকেট।

অভিযোগ রয়েছে- চক্রটি ভুয়া সিল, ভুয়া সাইন, ভুয়া স্কেন দেখিয়ে মানুষদের সাথে প্রতারণা করে আসছে। এছাড়া লাইন না মেনে জোরপূর্বক টিকা কেন্দ্রের ভিতরে প্রবেশ করে টিকা প্রয়োগের চেষ্টাও চালাচ্ছেন। এসময় সিটি কর্পোরেশনের স্বেচ্ছাসেবকরা বাধা দিলে তাদের হুমকি প্রদান করে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের বহির্বিভাগের চতুর্থ তলায় ১২টি বুথে টিকা দেয়া হচ্ছে। তবে প্রতিটি বুথ থেকে শুরু হওয়া টিকা গ্রহীতা মানুষের লাইন শুরু হয়ে দ্বিতীয়, প্রথম তলা পর্যন্ত চলে গেছে। ক্ষেত্রবিশেষে কোন কোন বুথে ছিল একাধিক লাইন। এমন লাইনে মানুষ একজনের গা ঘেষে আরেকজন দাঁড়িয়েছিলেন। এতে করে টিকা নিতে আসা মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি ছিল না। ছিল না মাস্কও। আর যারা স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলবেন, তারা টিকা গ্রহীতার মানুষের তুলনায় খুবই অল্প।

এদিকে- করোনাভাইরাসে টিকা দেয়ার শুরু থেকেই সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালন করছেন রেড ক্রিসেন্টের সদস্যরা। তারা এই কাণ্ডের কারণে বিব্রত বলে জানালেন যুব রেড ক্রিসেন্টের কো-অর্ডিনেট মোহাম্মদ নাজিব খান।

তিনি বলেন, ‘আমরা করোনা টিকা শুরু হওয়ার পর থেকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করে আসছি। গত ১০ থেকে ১৫ দিন থেকে একটি চক্র বিভিন্নভাবে মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছে। এছাড়া টিকা কেন্দ্রে এসে আমাদের স্বেচ্ছাসেবীদের কাজে বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। এসব বন্ধে আমরা প্রশাসনের কাছে জোর পদক্ষেপ কামনা করছি।’

গত কয়েকদিন আগে সাংবাদিক শাকেল মিয়া। তিনি সিলেট বিভাগে দীর্ঘ ৩ বছর ধরে বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন। যেমন স্কাউট, BNCC Cadet, সবশেষ রেড ক্রিসেন্টের সদস্য। তিনি এই প্রতারকদের বাধা দিলে কয়েক দিন পর তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আই যে তিনি নাকি নাকি ভ্যাকসিন প্রতি ৬ হাজার টাকা নিচ্ছেন। এটি মিথ্যা কথা। তিনি এই বিষয়ে কতৃপক্ষে জানান এমনকি প্রশাসন ও বিশ্বনাথ থানার অফিসার, চেয়ারম্যান,মেম্বারকে অভিহিত করেন তার সমাধানের এর মধ্যে জানা রেড ক্রিসেন্টের সাবেক যুব প্রধান আশ্বাস দেন নাজিম খান বলেন শাকেল বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়োট এতে কোনো সন্দেহ নেই।শাকেলকে তার আগের জায়গায় টিউটি দিবেন বলেন বলে আশ্বাস দেন।
এতে শাকেলের পরিবার শান্তির নিঃশ্বাস ফেলে।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জয়নাল হোসেন বলেন, আমি করোনা টিকা শুরু হওয়ার পর থেকে এরকম কোনো কিছু শুনিনি বা আমার কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে আজকে এক নারী এসে আমাকে জানিয়েছেন এক লোক তার কাছ থেকে ৫০০ টাকা নিয়েছেন। পরে ওই নারীকে নিয়ে আমি ঘটনাস্থলে গেলে তিনি কাউকে চিহ্নিত করতে পারেন নি।

এদিকে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, মর্ডানার টিকার প্রথম ডোজ আজকে শেষ হচ্ছে শুনেই মানুষ ভিড় করছেন। আর এই ভিড়কে কাজে লাগিয়ে একটি চক্র ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা নেয়ার অভিযোগ শুনে আমি সরেজমিনে পুলিশ নিয়ে গিয়েছিলাম। তবে আমরা কাউকে পাইনি। তবে কয়েকজন টাকা দেয়ার বিষয়টি আমাদের জানিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, করোনার টিকা নিলে আর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবেন না এই বিশ্বাস সমাজে চলে এসেছে। এটি খুবই বিপদজনক একটি বিশ্বাস। কারণ টিকা নিলে করোনা হবে না এই তথ্য ভুল। তবে টিকা নিলে সুরক্ষা পাওয়া যাবে। এজন্য স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক পরে টিকা কেন্দ্রে যেতে হবে এবং টিকা গ্রহণ করতে হবে।

টিকার মূল দায়িত্ব সিসিক কর্তৃপক্ষের; উল্লেখ করে দালালদের ব্যাপারে কোন অভিযোগ পেলে ক্ষতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার ব্রায়ান বঙ্কিম হালদার।

এদিকে, বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) সিলেটে করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন আরও ৮ হাজার ১৪০ জন। সিলেট নগরীর দুইটি টিকা কেন্দ্রে এসব মানুষ এই টিকা নেন।

এরমধ্যে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মডার্নার করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন হাজার ৭৩৬০ জন আর পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে ৭৮০ জন টিকা নেন। এদিকে সিনোর্ফামার টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২৫২ জন আর কোভিশিল্ড নেন ১৮৬০ জন।


এ জাতীয় আরো খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!