• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০২:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ছাতকে পশু হাসপাতালে অর্ধলাখ টাকা বিদ্যুৎ বিল বেনাপোল সীমান্ত এলাকায় থেকে পিস্তল, গুলি, ম্যাগজিন ও ফেনসিডিল উদ্ধার মির্জাগঞ্জে শেখ রাসেল এর ৫৮ তম জন্মদিন পালিত ছাতকে ১০টি ইউনিয়নে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র দাখিল পাথঘাটায় রাগ করে ১২ বছরের কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে সিলেট বিভাগ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের মতবিনিময় সভা পাথরঘাটায় হিন্দু সম্প্রদায়ের এক যুবকের বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তির অভিযোগ। গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পুলিশের অভিযানে ইসরাফিল হত্যার আসামী আটক ২ পাথরঘাটা গলায় ফাঁস দিয়ে ১৮ বছরের এক যুবতীর রহস্যজনক মৃত্যু! ছাতকে ৩৪ বোতল ভারতীয় মদসহ গ্রেফতার ১
ঘোষণা
দৈনিক আমার দিগন্তর পএিকায় প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে আজই যোগাযোগ করুন সম্পাদক দৈনিক আমার দিগন্তর মোবাঃ 01711169167

এসপির বিরুদ্ধে নারী পুলিশ কর্মকর্তার ধর্ষণ মামলার আবেদন

দৈনিক আমার দিগন্তর / ৪৬ বার
প্রকাশ হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ১২ আগস্ট, ২০২১

এসপির বিরুদ্ধে নারী পুলিশ কর্মকর্তার ধর্ষণ মামলার আবেদন

স্টাফ রিপোর্টার
দৈনিক আমার দিগন্তর

ঢাকা: পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পুলিশ সুপার (এসপি) মোক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়েরের আবেদন করেছেন এক নারী পুলিশ পরিদর্শক।

বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহারের আদালতে মামলার আবেদন করেন তিনি।

আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে নথি পর্যালোচনায় আদেশ দেবেন বলে জানান বাদীপক্ষের আইনজীবী সালাহ উদ্দিন খান।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, পুলিশ সুপার মোক্তার হোসেন ২০১৯ সালের মে মাসে সুদানে জাতিসংঘের শান্তি মিশনে বাংলাদেশ পুলিশের কন্টিনজেন্টের কমান্ডার হিসেবে নিযুক্ত হন।

বাদী আগে থেকেই সেখানে কর্মরত থাকায় মিশন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকায় বিভিন্ন অজুহাতে সহযোগিতার নামে তার সঙ্গে যোগাযোগ করেন এসপি। সেখানে তাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

২০১৯ সালের ২০ ডিসেম্বর দুপুরে আসামি বাদীর বাসায় গিয়ে তার ব্যবহৃত গাড়ির চাবি চান। বাদী চাবি ইউনিফর্মের পকেট থেকে আনতে গেলে আসামি পেছন থেকে তাকে জাপ্টে ধরে ধর্ষণ করেন।

এরপর এ ঘটনা কাউকে না জানাতে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি হুমকি-ধমকি দেন। ২২ ডিসেম্বর ক্ষমা চেয়ে আবারও তাকে ধর্ষণ করেন। ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি মৌখিকভাবে বিবাহ করে বাদীকে আবারও ধর্ষণ করেন। এরপরও আরও কয়েক দফা বাদীকে ধর্ষণ করেন মোক্তার হোসেন।
নিকাহ রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করে বাদীকে গ্রহণ করার তাগিদ দিলে মোক্তার হোসেন তার সাথে অশোভন আচরণ করেন। বাদীকে এড়িয়ে যেতে থাকেন। এ অবস্থায় গত ২১ এপ্রিল বাদী মোক্তার হোসেনের রাজারবাগের বাসায় গিয়ে আশ্বাস অনুযায়ী বিয়ের কাবিননামা সম্পন্ন করার তাগিদ দেন। এতে মোক্তার হোসেন অস্বীকৃতি জানান।

মোক্তার হোসেন, তার স্ত্রী ও পরিবারের অন্য সদস্যরা উত্তেজিত হয়ে বাদীকে মারধর করেন এবং হুমকি-ধামকি দেন।

করোনার কারণে আদালত বন্ধ থাকায় মামলা করতে বিলম্ব হয়েছে বলে জানান বাদী। গত ১০ আগস্ট বাদী উত্তরা পূর্ব থানায় মামলা করতে গেলে থানা কর্তৃপক্ষ মামলা না নিয়ে আদালতে মামলার করার জন্য বলে। এ জন্য আদালতে এসে মামলা দায়ের করলেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন বাদী।


এ জাতীয় আরো খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!